মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

কার্যবিবরণী ও গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত

 উপজেলা চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির নভেমবর/২০১৪ মাসে অনুষ্ঠিত সভার কার্য বিবরণীঃ

            সভাপতিঃ         মোহাম্মদ কামাল হোসেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, দুর্গাপুর, নেত্রকোণা।

            সভার সহানঃ        উপজেলা পরিষদ মিলনায়তন, দুর্গাপুর,নেত্রকোণা।

            সভার তারিখঃ       ০৫ নভেমবর ২০১৪ খ্রিঃ,      সময়ঃ ১০-৩০ মিঃ।

            সভায় উপসিহত সদস্যবৃন্দ    ঃ         পরিশিষ্ট  ক

 

            সভাপতি উপসিহত সকল সম্মানিত সদস্যগণকে স্বাগত জানিয়ে সভার কাজ শুরু করেন। অতঃপর ধারাবাহিকভাবে আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

বিগত সভার কার্য বিবরণী পাঠ ও অনুমোদনঃ

            সভায় বিগত সভার কার্য বিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতিক্রমে অনুমোদন করা হয়।

চোরাচালান প্রতিরোধ সংক্রান্ত আলোচনাঃ

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাসতবায়নে

       সভায় চেয়ারম্যান গাঁওকান্দিয়া ইউপি বলেন এলাকায় জুয়া খেলা বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি জুয়া বন্ধের প্রয়োজনীয় ব্যবসহা গ্রহণের অনুরোধ জানান।

     চেয়ারম্যান চন্ডিগড় ইউপি বলেন চন্ডিগড় ইউনিয়নের বিভিন্ন সহানে জুয়াখেলা বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি জুয়া বন্ধের অনুরোধ জানান।

    চেয়ারম্যান কুল­াগড়া ইউনিয়ন বলেন কুল­াগড়া ইউনিয়নের এলাকায় জুয়া ও সীমান্তে পাচার বৃদ্ধি পেয়েছে। এ উপজেলা হতে প্রচুর পরিমানে মাছ সীমান্ত দিয়ে পাচার হয়। তিনি জুয়া ও মাছসহ যেকোন ধরণের পাচার বন্ধের অনুরোধ জানান।

    কোম্পানী কমান্ডার বিজয়পুর বিওপি বলেন, টহল ব্যবসহা জোরদার করা হলেও অনেক সময় চোকের আড়ালে পাচার করা হয়ে থাকে। তবে সকলের সহযোগিতা পেলে যেকোন ধরণের পাচার বন্ধ করা সম্ভব।

    অফিসার ইন-চার্জ, দুর্গাপুর থানা বলেন, শশারপাড়া এলাকার রশিদ নামে এক ব্যক্তি জুয়া খেলার মুল হোতা, কখনও কখনও সে পাচারেও জড়িত হয়। তিনি রশিদকে ধরার ব্যাপারে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। তিনি জুয়রুদের নামের তালিকা দেয়ার অনুরোধ জানান। ইদানিং কেরামবোর্ড ও লুডু দিয়েও জুয়া খেলা হচ্ছে। এগুলো সামাজিক ব্যধি, তিনি এ ব্যধি দুরীকরণের জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। মদখোর ও জুয়ারুদের ধরার জন্য নিয়মিত অভিযান পরিচালিত হচ্ছে এবং সময়ে সময়ে জেল জরিমানা করা হচ্ছে।

    উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সভাপতি বলেন অভিযোগ রয়েছে যে, কুল­াগড়া ইউনিয়নের বিপিনগঞ্জ বাজারে মদের দোকান বসে এবং এখান থেকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে চলে যায়। এ ব্যাপারে আমরা মাসে ২/৩ টি টাস্কফোর্স করতে পারি। তিনি বলেন ইয়াবা, হেরোইন জাতীয় বিভিন্ন নেশায় যুবসমাজ ধ্বংশ হয়ে যাচ্ছে। যুবসমাজকে রক্ষা করতে হলে সকল প্রকার নেশা থেকে মুক্ত রাখতে হবে, আর এ কাজে সর্বসহরের সহযোগিতা প্রয়োজন। শুধু আইন প্রয়োগ করে সমাজকে নেশা মুক্ত করা যাবেনা, প্রয়োজন সচেতনতা ও সামাজিক সহযোগিতা। তিনি সকল অভিভাবক, রাজনীতিবিদ ও সুশীল সমাজকে মাদকমুক্ত দেশ গড়ার কাজে সহযোগিতা করার আহবান জানান। তিনি অদ্যকার সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত সমূহ যথাযথভাবে বাসতবায়নের জন্য সংশি­ষ্ট বিভাগ/সংসহাকে অনুরোধ জানান।      

১) জুয়া ও সীমান্তের পাচার বন্ধে আন্তরিকতার সাথে কাজ করার নিয়মিত অভিযান পরিচালনার জন্য অফিসার ইন-চার্জ, দুর্গাপুর থানা ও বিজিবিকে অনুরোধ জানানো হয়।

২) সীমান্ত দিয়ে মাছসহ অন্যান্য দ্রব্যাদির পাচার বন্ধের ও কোন প্রকার মাদক দ্রব্য আমদানী না হয় সেজন্য সীমান্তের টহল ব্যবসহা জোরদারসহ মাদকের অপব্যবহার বন্ধের প্রয়োজনীয় ব্যবসহা গ্রহণের জন্য অফিসার ইন-চার্জ, দুর্গাপুর থানা ও বিজিবিকে অনুরোধ জানানো হয়।

 ৩) সমত্রাস ও নাশকতাসহ জুয়া, ইভটিজিং, মাদকের অপব্যবহার এবং যৌতুক ও বাল্য বিবাহ ইত্যাদির কু-ফল ও অপরাধ বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সকল জনপ্রতিধিগণকে সভা- সেমিনার করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

অফিসার ইনচার্জ, দুর্গাপুর থানা কোম্পনী কমান্ডার, বিজিবি সকল বিওপি।

 

 

অফিসার ইনচার্জ, দুর্গাপুর থানা কোম্পনী কমান্ডার, বিজিবি সকল বিওপি।

 

 

 

 

 

 

অফিসার ইনচার্জ, দুর্গাপুর থানা, সকল জনপ্রতিনিধি।

 

 

 

 

 

 

           

            সভায় আর কোন আলোচনা না থাকায় সভাপতি কর্তৃক উপসিহত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

 

 

 

 

 

( মোহাম্মদ কামাল হোসেন )

                    উপজেলা নির্বাহী অফিসার

                          দুর্গাপুর,নেত্রকোণা।

                       

 

 


 উপজেলা মাদকদ্রব্য নিয়মত্রণ কমিটির নভেমবর/২০১৪ মাসে অনুষ্ঠিত সভার কার্য বিবরণীঃ

            সভাপতিঃ         জনাব ,মোহাম্মদ কামাল হোসেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার, দুর্গাপুর, নেত্রকোণা।

            সভার সহানঃ        উপজেলা পরিষদ মিলনায়তন, দুর্গাপুর, নেত্রকোণা।

            সভার তারিখঃ       ০৫ নভেমবর ২০১৪ খ্রিঃ,      সময়ঃ ১০-৪৫ মিঃ।

            সভায় উপসিহত সদস্যবৃন্দ    ঃ         পরিশিষ্ট  ক

            সভাপতি উপসিহত সম্মানিত সদস্যগণকে স্বাগত জানিয়ে সভার কাজ শুরু করেন। অতঃপর ধারাবাহিকভাবে আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

বিগত সভার কার্য বিবরণী পাঠ ও অনুমোদনঃ

            সভায় বিগত সভার কার্য বিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতিক্রমে অনুমোদন করা হয়।

মাদকদ্রব্য সংক্রান্ত আলোচনাঃ

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাসতবায়নে

       চেয়ারম্যান কুল্লাগড়া ইউনিয়ন বলেন কুল্লাগড়া ইউনিয়নের এলাকায় জুয়া ও সীমান্তে পাচার বৃদ্ধি পেয়েছে। এ উপজেলা হতে প্রচুর পরিমানে মাছ সীমান্ত দিয়ে পাচার হয়। তিনি জুয়া ও মাছসহ যেকোন ধরণের পাচার বন্ধের অনুরোধ জানান।

    কোম্পানী কমান্ডার বিজয়পুর বিওপি বলেন, টহল ব্যবসহা জোরদার করা হলেও অনেক সময় চোকের আড়ালে মাদক দ্রব্যসহ অন্যান্য দ্রব্যাদি আমাদানী/পাচার করা হয়ে থাকে। তবে সকলের সহযোগিতা পেলে যেকোন ধরণের পাচার বন্ধ করা সম্ভব।

    অফিসার ইন-চার্জ, দুর্গাপুর থানা বলেন, শশারপাড়া এলাকার রশিদ নামে এক ব্যক্তি জুয়া খেলার মুল হোতা, কখনও কখনও সে পাচারেও জড়িত হয়। তিনি রশিদকে ধরার ব্যাপারে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। তিনি জুয়রুদের নামের তালিকা দেয়ার অনুরোধ জানান। ইদানিং কেরামবোর্ড ও লুডু দিয়েও জুয়া খেলা হচ্ছে। এগুলো সামাজিক ব্যধি, তিনি এ ব্যধি দুরীকরণের জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। মদখোর ও জুয়ারুদের ধরার জন্য নিয়মিত অভিযান পরিচালিত হচ্ছে এবং সময়ে সময়ে জেল জরিমানা করা হচ্ছে।

    উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সভাপতি বলেন অভিযোগ রয়েছে যে, কুল্লাগড়া ইউনিয়নের বিপিনগঞ্জ বাজারে মদের দোকান বসে এবং এখান থেকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে চলে যায়। এ ব্যাপারে আমরা মাসে ২/৩ টি টাস্কফোর্স করতে পারি। তিনি বলেন ইয়াবা, হেরোইন জাতীয় বিভিন্ন নেশায় যুবসমাজ ধ্বংশ হয়ে যাচ্ছে। যুবসমাজকে রক্ষা করতে হলে সকল প্রকার নেশা থেকে মুক্ত রাখতে হবে, আর এ কাজে সর্বসহরের সহযোগিতা প্রয়োজন। শুধু আইন প্রয়োগ করে সমাজকে নেশা মুক্ত করা যাবেনা, প্রয়োজন সচেতনতা ও সামাজিক সহযোগিতা। তিনি সকল অভিভাবক, রাজনীতিবিদ ও সুশীল সমাজকে মাদকমুক্ত দেশ গড়ার কাজে সহযোগিতা করার আহবান জানান। তিনি অদ্যকার সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত সমূহ যথাযথভাবে বাসতবায়নের জন্য সংশি­ষ্ট বিভাগ/সংসহাকে অনুরোধ জানান।      

১) জুয়া ও সীমান্তের পাচার বন্ধে আন্তরিকতার সাথে কাজ করার নিয়মিত অভিযান পরিচালনার জন্য অফিসার ইন-চার্জ, দুর্গাপুর থানা ও বিজিবিকে অনুরোধ জানানো হয়।

২) সীমান্ত দিয়ে কোন প্রকার মাদক দ্রব্য আমদানী না হয় সেজন্য সীমান্তের টহল ব্যবসহা জোরদারসহ মাদকের অপব্যবহার বন্ধের প্রয়োজনীয় ব্যবসহা গ্রহণের জন্য অফিসার ইন-চার্জ, দুর্গাপুর থানা ও বিজিবিকে অনুরোধ জানানো হয়।

 ৩) সমত্রাস ও নাশকতাসহ জুয়া, ইভটিজিং, মাদকের অপব্যবহার এবং যৌতুক ও বাল্য বিবাহ ইত্যাদির কু-ফল ও অপরাধ বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সকল জনপ্রতিধিগণকে সভা- সেমিনার করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

অফিসার ইনচার্জ, দুর্গাপুর থানা কোম্পনী কমান্ডার, বিজিবি সকল বিওপি।

 

 

অফিসার ইনচার্জ, দুর্গাপুর থানা কোম্পনী কমান্ডার, বিজিবি সকল বিওপি।

 

 

 

 

 

 

অফিসার ইনচার্জ, দুর্গাপুর থানা, সকল জনপ্রতিনিধি।

 

 

 

 

            সভায় আর কোন আলোচনা না থাকায় সভাপতি কর্তৃক উপসিহত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

 

 

 

( মোহাম্মদ কামাল হোসেন )

                    উপজেলা নির্বাহী অফিসার

                          দুর্গাপুর,নেত্রকোণা।

                       

 


উপজেলা আইন শৃংখলা নিয়মত্রণ কমিটির নভেমবর/২০১৪ মাসে অনুষ্ঠিত সভার কার্য বিবরণীঃ

            সভাপতি   ঃ      জনাব মোহাম্মদ কামাল হোসেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, দুর্গাপুর, নেত্রকোণা।

            সভার সহানঃ        উপজেলা পরিষদ মিলনায়তন, দুর্গাপুর,নেত্রকোণা।

            সভার তারিখঃ       ০৫ নভেমবর ২০১৪ খ্রিঃ,      সময়ঃ ১০-০০ মিঃ।

            সভায় উপসিহত সদস্যবৃন্দ    ঃ         পরিশিষ্ট  ক

            সভাপতি উপসিহত সকল সম্মানিত সদস্যগণকে স্বাগত জানিয়ে সভার কাজ শুরু করেন। অতঃপর ধারাবাহিকভাবে আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

বিগত সভার কার্য বিবরণী পাঠ ও অনুমোদনঃবিগত সভার কার্য বিবরণী পাঠ করা হয় এবং তাতে কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতিক্রমে অনুমোদন করা হয়।

            আইন শৃংখলা পরিসিহতি সংক্রান্ত আলোচনাঃ

            নভেমববর/২০১৪ মাসের অপরাধ চিত্র ও সার্বিক আইন শৃংখলা পরিসিহতি সম্পর্কিত আলোচনাঃ

ডাকাতি

দস্যূতা

সিধেল চুরি

চুরি

গরু চুরি

মোটরসাইকেল চুরি

তার চুরি

দাঙ্গা

খুনের মামলা

দাঙ্গা সহ খুন

অস্ত্র আইন

চোরাচালান

মাদক দ্রব্য

অপহরণ

নারী ও শিশু নির্যাতন

ধর্ষণ

এসিড নিক্ষেপ

দ্রুত বিচার

অন্যান্য

মোট

-

-

-

-

-

 

-

-

-

-

 

-

 

-

-

১২

১৭

-

-

-

-

-

 

-

-

 

-

-

 

 

-

 

 

-

-

 

 

 

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাসতবায়নে

     সভায় অবহিত করা হয় যে, নভেমবরর/২০১৪ মাসে এ পর্যন্ত মোট ১৭ টি মামলা দায়ের হয়েছে।

     সভায় আরও অবহিত করা হয় যে, দু’একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া অত্র উপজেলার সার্বিক আইন শৃংখলা পরিসিহতি ভাল।

      সভায় চেয়ারম্যান গাঁওকান্দিয়া ইউপি বলেন কয়েকদিন আগে নাওধারা গ্রামে দরবার সহলে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে মেরে ফেলা হয়েছে। অফিসার ইন-চার্জ, দুর্গাপুর থানা বিষয়টি নিয়মিত তদারকি করছেন। তিনি দ্রুত আসামীদেরকে ধরে আইনানুগ শাসিতমূলক ব্যবসহা গ্রহণের অনুরোধ জানান। তিনি আরও বলেন তার এলাকায় জুয়া খেলা বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি জুয়া বন্ধের প্রয়োজনীয় ব্যবসহা গ্রহণের অনুরোধ জানান।

     চেয়ারম্যান চন্ডিগড় ইউপি বলেন চন্ডিগড় ইউনিয়নের আইন শৃংখলা পরিসিহতি স্বাভাবিক রয়েছে। তবে জুয়াখেলা বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি জুয়া বন্ধের অনুরোধ জানান।

    চেয়ারম্যান কুল্লাগড়া ইউনিয়ন বলেন কুল্লাগড়া ইউনিয়নের সার্বিক পরিসিহতি ভাল। তবে এলাকায় জুয়া ও সীমান্তে পাচার বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি জুয়া ও পাচার বন্ধের অনুরোধ জানান।

     চেয়ারম্যান বিরিশিরি ইউপি বলেন বিরিশিরি মোড় হতে কিছু ভাড়াটে মোটর সাইকেল রাতের বেলায় দ্রুত গতিতে চালানোর ফলে পথচারী নির্ভিঘ্নে রাসতায় চলাচল করতে পারেনা। তিনি ভাড়াটে মোটরসাইকেল নিয়মিত্রতভাবে চালানোর প্রয়োজনীয় ব্যবসহা গ্রহণের অনুরোধ জানান।

     দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি বলেন প্রতি ইউনিয়নে সকল জনপ্রতিনিধিদেরকে নিয়ে এলাকায় গণসচেতনতামূলক সভা/সেমিনার করলে হয়তো মদ-গাঁজা ও জুয়ার প্রতিকার পাওয়া যেতে পারে।

      জনাব আবদুল হান্নান বলেন স্মরণকালের প্রলয়ংকরী বন্যায় দুর্গাপুর উপজেলাসহ পার্শ্ববর্তী এলাকার ফসলী জমি, রাসতা-ঘাট, বাড়ী-ঘর মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রসহ হয়েছে। এলাকার সকল পুকুর বন্যার পানিতে তলিয়ে গিয়েছে। এ বন্যায় সকল মানুষ মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রসহ হয়েছেন। তিনি বন্যায় ক্ষতিগ্রসহ রাসতা-ঘাট মেরামতসহ ক্ষতিগ্রসহ মানুষদের সহযোগিতা করার অনুরোধ জানান। তিনি আরও বলেন এ উপজেলা হতে প্রচুর পরিমানে মাছ সীমান্ত দিয়ে পাচার হয়। তিনি মাছসহ যেকোন ধরণের পাচার বন্ধের অনুরোধ জানান। তিনি বলেন কিছু অসাধু ব্যবসায়ী দুর্গাপুর বাজারে দুধে পানি মিশিয়ে বিক্রি করে সাধারণ মানুষকে প্রতারিত করছে। দুর্গাপুর বাজারের মধ্যদিয়ে বালির ট্রাকসহ অন্যান্য মালবাহী ট্রাক চলাচলের ফলে বাজারের রাসতা ভেঙ্গে যাচ্ছে এবং ট্রাক চলাকালীন সময়ে বাতাসে বালু উড়িয়ে পরিবেশ দুষিত করে ফেলছে, ট্রাক চলাচলের ফলে স্কুল-কলেজগামী ছাত্র-ছাত্রীদের যাতায়াতও বিঘ্নিত হচ্ছে। তিনি মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে নির্ভেজাল দুধ প্রাপ্তি নিশ্চিতকরণসহ ট্রাক চলাচলের বিকল্প রাসতা করা বা নিয়মিত্রতভাবে ট্রাক-যানবাহন পরিচালনার প্রয়োজনীয় ব্যবসহা গ্রহণের জন্য অনুরোধ জানান।

    অফিসার ইন-চার্জ, দুর্গাপুর থানা বলেন, শশারপাড়া এলাকার রশিদ নামে এক ব্যক্তি জুয়া খেলার মুল হোতা, কখনও কখনও সে পাচারেও জড়িত হয়। তিনি রশিদকে ধরার ব্যাপারে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। তিনি বলেন ভাড়াটে মোটরসাইকেল রাত নয়টার পর বন্ধ রাখার জন্য পূর্ব থেকেই নির্দেশ দেয়া আছে। এ নির্দেশনা বাসতবায়নে পুলিশ সচেষ্ট রয়েছে, তদুপরী তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। আরও বলেন পুলিশ জুয়ারুদেরকে চিনেনা। তিনি জুয়রুদের নামের তালিকা দেয়ার অনুরোধ জানান। ইদানিং কেরামবোর্ড ও লুডু দিয়েও জুয়া খেলা হচ্ছে। এগুলো সামাজিক ব্যধি, তিনি এ ব্যধি দুরী করণের জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। মদখোর ও জুয়ারুদের ধরার জন্য নিয়মিত অভিযান পরিচালিত হচ্ছে এবং সময়ে সময়ে জেল জরিমানা করা হচ্ছে। গাঁওকান্দিয়া ইউনিয়নের ২ জন খুনের আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন দুর্গাপুর বাজারে নাজির মোড়ে ভাঙ্গারী দোকান ও আসবাবপত্রের দোকান রাসতার উপড়ে চলে আসছে। তিনি মোবাইল কোর্ট অভিযানের মাধ্যমে রাসতার অবৈধ দখলকার উচ্ছেদের প্রসতাব করেন।

     চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ বলেন, এ উপজেলার সার্বিক আইন-শৃংখলা পরিসিহতি ভাল। তবে বিভিন্নভাবে আইন শৃংখলার অবনতি ঘটতে পারে। দুর্গাপুর বাজারের নাজিরপুর মোড় নামক সহানে চতুর্দিকে যানঝট লেগে থাকে। এখানে ৪/৫টি মোটরসাইকেল সার্ভিসিং এর দোকান রয়েছে। এখানে নিয়মিত ট্রাফিক-সার্ভিসিং ব্যবসহা করার জন্য অফিসার ইন-চার্জ, দুর্গাপুর থানাকে অনুরোধ করেন। তিনি আরও বলেন দুর্গাপুর পৌরসভাসহ সকল ইউনিয়ন হতে জুয়া খেলার অভিযোগ পাওয়া যায়। অনেক পরিবারের অশান্তির মুল কারণ জুয়া খেলা। আমরা সকলে মিলে চেষ্টা করলে জুয়া খেলা বন্ধ করা সম্ভব হবে বিধায় তিনি সকল জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্ধ, সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ আইন শৃংখলা রক্ষায় নিয়োজিত বাহিনীকে আন্তরিকতার সাথে তৎপর হয়ে জুয়া খেলা বন্ধের প্রয়োজনীয় ব্যবসহা গ্রহণের অনুরোধ জানান।

    উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সভাপতি বলেন অভিযোগ রয়েছে যে, কুল্লাগড়া ইউনিয়নের বিপিনগঞ্জ বাজারে মদের দোকান বসে এবং এখান থেকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে চলে যায়। এ ব্যাপারে আমরা মাসে ২/৩ টি টাস্কফোর্স করতে পারি। তিনি বলেন ইয়াবা, হেরোইন জাতীয় বিভিন্ন নেশায় যুবসমাজ ধ্বংশ হয়ে যাচ্ছে। যুবসমাজকে রক্ষা করতে হলে সকল প্রকার নেশা থেকে মুক্ত রাখতে হবে, আর এ কাজে সর্বসহরের সহযোগিতা প্রয়োজন। শুধু আইন প্রয়োগ করে সমাজকে নেশা মুক্ত করা যাবেনা, প্রয়োজন সচেতনতা ও সামাজিক সহযোগিতা। তিনি সকল অভিভাবক, রাজনীতিবিদ ও সুশীল সমাজকে মাদকমুক্ত দেশ গড়ার কাজে সহযোগিতা করার আহবান জানান। আইন শৃংখলা পরিসিহতি স্বাভাবিক রাখার লক্ষ্যে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। এ লক্ষে তিনি মাদক, চোরাচালান ও আইন শৃংখলার উন্নতি কল্পে আগামী ১৩ নভেমবর ২০১৪ খ্রিঃ তারিখ বিকাল ৩.০০ টায় বিপিনগঞ্জ বাজারে আড়াপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ইউনিয়ন আইন শৃংখলা কমিটির সভা অনুষ্ঠানের প্রয়োজনীয় ব্যবসহা গ্রহণের জন্য অফিসার ইন-চার্জ, দুর্গাপুর থানা ও কুল্লাগড়া ইউপি অনুরোধ জানান। তিনি অদ্যকার সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত সমূহ যথাযথভাবে বাসতবায়নের জন্য সংশি­ষ্ট বিভাগ/সংসহাকে অনুরোধ জানান।

১) আইন শৃংখলা পরিসিহতি স্বাভাবিক রাখার প্রয়োজনীয় ব্যবসহা গ্রহণের জন্য অফিসার ইনচার্জ দুর্গাপুরকে অনুরোধ করা হয় ।

২) খুনের মামলায় সকল আসামীদেরকে গ্রেফতারসহ আইনানুগ শাসিতমূলক গ্রহণের জন্য অফিসার ইন-চার্জ, দুর্গাপুর, থানাকে অনুরোধ জানানো হয়।

৩) জুয়া ও সীমান্তের পাচার বন্ধে আন্তরিকতার সাথে কাজ করার নিয়মিত অভিযান পরিচালনার জন্য অফিসার ইন-চার্জ, দুর্গাপুর থানা ও বিজিবিকে অনুরোধ জানানো হয়।

৪) রাত ৯ টা পর্যন্ত ও নিয়মিত্রতভাবে মোটরসাইকেল পরিচালনা নিশ্চিত করার জন্য অফিসার ইন-চার্জ, দুর্গাপুর থানাকে অনুরোধ জানানো হয়।

৫) সীমান্ত দিয়ে মাছসহ অন্যান্য দ্রব্যাদির পাচার বন্ধের ও কোন প্রকার মাদক দ্রব্য আমদানী না হয় সেজন্য সীমান্তের টহল ব্যবসহা জোরদারসহ মাদকের অপব্যবহার বন্ধের প্রয়োজনীয় ব্যবসহা গ্রহণের জন্য অফিসার ইন-চার্জ, দুর্গাপুর থানা ও বিজিবিকে অনুরোধ জানানো হয়।

 ৬) দুর্গাপুর বাজারে নির্ভেজাল দুধ প্রাপ্তি ও বিশুদ্ধ খাদ্য আইনে মোবাইল কোর্ট পরিচালনার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

৭) বালির ট্রাক ও অন্যান্য মালবাহী ট্রাক চলাচলের জন্য বিকল্প রাসতা নির্মাণের জন্য মেয়র, দুর্গাপুর পৌরসভাকে অনুরোধ জানানো হয়।

৮) দুর্গাপুর বাজারের নাজিরপুর মোড় নামক সহানে ট্রাফিক ব্যবসহা নিয়মত্রণ করার জন্য অফিসার ইন-চার্জ দুর্গাপুর থানাকে অনুরোধ জানানো হয়।

৯) সমত্রাস ও নাশকতাসহ জুয়া, ইভটিজিং, মাদকের অপব্যবহার এবং যৌতুক ও বাল্য বিবাহ ইত্যাদির কু-ফল ও অপরাধ বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সকল জনপ্রতিধিগণকে সভা- সেমিনার করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

১০) আগামী ১৩ নভেমবর ২০১৪ খ্রিঃ তারিখ বিকাল ৩.০০ টায় বিপিনগঞ্জ বাজারে আড়াপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ইউনিয়ন আইন শৃংখলা কমিটির সভা আহবান করতঃ মাইকে প্রচার করে সর্বসাধারণের উপসিহতিতে সভা অনুষ্ঠানের প্রয়োজনীয় ব্যবসহা গ্রহণের জন্য অফিসার ইন-চার্জ, দুর্গাপুর থানা ও কুল্লাগড়া ইউপি অনুরোধ জানানো হয়।

অফিসার ইনচার্জ, দুর্গাপুর থানা।

 

 

 

অফিসার ইনচার্জ, দুর্গাপুর থানা, সকল জনপ্রতিনিধি।

 

 

 

অফিসার ইনচার্জ, দুর্গাপুর থানা কোম্পনী কমান্ডার, বিজিবি সকল বিওপি।

 

 

অফিসার ইনচার্জ, দুর্গাপুর থানা।

 

 

 

 

কোম্পনী কমান্ডার, বিজিবি সকল বিওপি।

 

 

 

 

 

 

 

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার/ সহকারী কমিশনার (ভুমি)

 

 

মেয়র, দুর্গাপুর পৌরসভা।

 

 

 

অফিসার ইনচার্জ, দুর্গাপুর থানা।

 

 

 

 

অফিসার ইনচার্জ, দুর্গাপুর থানা ও বিজিবি।

 

 

 

 

 

 

অফিসার ইনচার্জ, দুর্গাপুর থানা ও চেয়ারম্যান কুল্লাগড়া ইউপি।

 

 

 

 

 

            সভায় আর কোন আলোচনা না থাকায় সভাপতি কর্তৃক উপসিহত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

                                                                                               

 

 ( মোহাম্মদ কামাল হোসেন )

                    উপজেলা নির্বাহী অফিসার

                          দুর্গাপুর,নেত্রকোণা।